Skip to content Skip to footer

পৃথিবী বদলে দেয়া এক জিনিয়াস স্টিভ জবস

“স্টিভ জবস” নামটি প্রযুক্তির জগতে সবচেয়ে বিখ্যাত নামের একটি। কম্পিউটার ও প্রযুক্তিকে বর্তমান অবস্থানে নিয়ে আসার পেছনে যাঁদের অবদান সবচেয়ে বেশি, তাদের মাঝে স্টিভ জবস প্রধান এক চরিত্র।

স্টিভেন ‘পল’ জবস ছিলেন একজন আমেরিকান উদ্ভাবক, ডিজাইনার; এবং অ্যাপল কম্পিউটারের সহ উদ্যোক্তা, সিইও ও চেয়ারম্যান। অ্যাপল এর বিশ্বখ্যাত পন্য আইপড, আইপ্যাড, আইফোন, আইম্যাককে ধরা হয় বর্তমান আধুনিক প্রযুক্তির শুরুর ধাপ হিসেবে। এর সবগুলোর পেছনেই ছিল তাঁর সরাসরি অবদান।

জবসের জন্ম হয় ১৯৫৫ সালের ২৪শে ফেব্রুয়ারী ইউনিভার্সিটি অব উইসকনসিন এর দুইজন গ্রাজুয়েটের সন্তান হিসেবে, যাঁরা জন্মের পরই তাঁদের ছেলেকে এ্যাডাপশন বা দত্তক এর জন্য দিয়ে দেন।

১৯৭৬ সালে জবসের বয়স যখন মাত্র ২১, ওজনিয়াকের সাথে মিলে তিনি তাঁদের পারিবারিক গ্যারেজে এ্যাপল কম্পিউটার শুরু করেন। জবস নিজের ভোক্সওয়াগন গাড়ি, এবং ওজনিয়াক নিজের প্রিয় সাইন্টিফিক ক্যালকুলেটর বিক্রি করে এ্যাপলের প্রাথমিক মূলধনের যোগান দেন।

প্রযুক্তি ব্যবহারে সবার অংশগ্রহণ নিশ্চিত করা,এবং ছোট আকৃতির, দামে সস্তা ও সহজে ব্যবহার করা যায় – এমন কম্পিউটার ও এর যন্ত্রাংশ তৈরী করার মাধ্যমে কম্পিউটার ইন্ডাস্ট্রিতে বিপ্লব ঘটানোর কৃতিত্ব দেয়ার হয় জবস ও ওজনিয়াককে।১৯৮৪ সালে এ্যাপল ম্যাকিনটোশ কম্পিউটার বাজারে ছাড়ে, যেটিকে স্রোতের বিপরীতমুখী লাইফস্টাইলের পরিচায়ক হিসেবে সামনে আনা হয়। ম্যাকিনটোশ ছিল রোমান্টিক, তারুণ্য-বান্ধব ও সৃষ্টিশীল একটি পন্য। কিন্তু লাভজনক বিক্রয়ের হার এবং আইবিএম এর কম্পিউটারের চেয়ে কর্মক্ষম হলেও আইবিএম ব্যবহারকারীরা ম্যাকিনটোশে স্বাচ্ছন্দ বোধ করছিলেন না।

মার্কেটের খারাপ অবস্থা চলার সময়ে, জবস এ্যাপলের ক্ষতি করছেন, এই মনগড়া ধারনা থেকে কোম্পানীর এক্সিকিউটিভরা জবসকে আক্রমণ করা শুরু করেন। নিজের গড়ে তোলা কোম্পানীতে নির্দিষ্ট কোনও অফিসিয়াল পদে না থাকায়, তারা জবসকে এমন একটি পরিস্থিতিতে ফেলেন যাতে করে তিনি আর স্বাধীন মত কাজ করতে পারছিলেন না, ফলে ১৯৮৫ সালে জবস অ্যাপল ত্যাগ করেন।

১৯৮৬ সালে জবস জর্জ লুকাসের কাছ থেকে পিক্সার এ্যানিমেশন কোম্পানী কিনে নেন। এটি পরবর্তীতে পিক্সার স্টুডিওস হিসেবে জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। পিক্সারের ভবিষ্যৎ সম্ভাবনার দিক বিবেচনা করে জবস তাঁর ব্যক্তিগত তহবিল থেকে ৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার কোম্পানীটিতে বিনিয়োগ করেন। পরবর্তীতে স্টুডিওটি থেকে টয় স্টোরি, ফাইন্ডিং নিমো, দি ইনক্রেডিবল্‌স এর মত জনপ্রিয় সিনেমা বের হয়।

১৯৯৭ সালে জবস সিইও হিসেবে অ্যাপলে ফিরে আসেন এবং যেভাবে তিনি ৭০ এর দশকে এ্যাপলকে সফলতার পথে নিয়ে গিয়েছিলেন, সেভাবেই ১৯৯০ এর দশকে অ্যাপলের গৌরব পুনরুদ্ধার করেন।

পরের বছরগুলোতে, ম্যাকবুক এয়ার, আইপড এবং আইফোনের মত আলোড়ন ঘটানো সব পন্য নিয়ে এসে প্রযুক্তি জগতে বিপ্লব সৃষ্টি করে অ্যাপল।

২০১১ সালের ৫ই অক্টোবর যুক্তরাষ্ট্রের পালো আলটোতে ৫৬ বছর বয়সে মৃত্যুবরণ করেন প্রযুক্তি জগতের প্রবাদ পুরুষ। তিনি প্রায় এক দশক যাবৎ অগ্নাশয়ের ক্যান্সারের সাথে লড়াই করছিলেন।

Sign Up to Our Newsletter

Be the first to know the latest updates

Whoops, you're not connected to Mailchimp. You need to enter a valid Mailchimp API key.

This Pop-up Is Included in the Theme
Best Choice for Creatives
Purchase Now